মঙ্গলবার | ৫ই মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
শ্রীমঙ্গলের সেন্ট মার্থাস উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরনী ফুলতলা ইউনিয়নে আইনশৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত মৌলভীবাজারে একতা যুব সংস্থার তাফসিরুল কোরআন মাহফিল ৩০ জানুয়ারি শীতার্ত মানুষের কল্যাণে স্টুডেন্ট ওয়েলফেয়ার সোসাইটির শীতবস্ত্র বিতরণ ‘বলাই-সজীব ভাই-ভাই, এক দড়িতে ফাঁসি চাই’ কুশিয়ারা পাড়ের ঐতিহ্যবাহী পৌষ সংক্রান্তির মাছের মেলা অদক্ষ চালক কেড়ে নিল প্রাণ; নতুন বই নিয়ে বাড়ি ফিরা হল না খাদিজার কুলাউড়ায় ঐতিহ্যবাহী ‘মাছের মেলা’ নবনির্বাচিত কৃষিমন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা দিয়েছে জেলা আওয়ামিলীগ শ্রীমঙ্গলে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে ত্রিপুরা পল্লীতে শীতবস্ত্র বিতরন

শ্রীমঙ্গলের সেন্ট মার্থাস উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরনী

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি
প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২৪, ৪:১৪ পূর্বাহ্ণ

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে সেন্ট মার্থাস উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে এবং শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন প্রধান ও বিশেষ অতিথিরা।

বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারী ) সকাল ১০ ঘটিকায় শহরের দেববাড়ী এলাকার সেন্ট মার্থাস উচ্চ বিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে আয়োজিত বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন সেন্ট মার্থাস উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সিস্টার রিক্তা গমেজ (আরএনডিএম)।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সেন্ট যোসেফ গীর্জার,পাল পুরোহিত রেভা: ফাদার শ্যামল গমেজ, (সিএসসি) । বিশেষ অতিথি ছিলেন শ্রীমঙ্গল নটরডেম স্কুল এন্ড কলেজ এর অধ্যক্ষ ফাদার প্রশান্ত ক্রুশ (সিএসসি), সেন্ট মার্থাস কিন্ডার গার্টেন প্রধান শিক্ষক সিস্টার সুপ্রীতি কস্তা (আরএনডিএম), বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সদস্য জনক দেববর্মা প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী শিক্ষার্থীদের হাতে অতিথিদের মাধ্যমে পুরস্কার সনদ তুলে দেওয়া হয়। এসময় প্রধান অতিথি পাল পুরোহিত ফাদার শ্যামল গমেজ ও বিশেষ অতিথিদের ব্যাজ ও ফুল দিয়ে সম্মাননা প্রদান করে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

তিন দিনব্যাপী বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতায় বিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত বিভিন্ন শ্রেনীর শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। এছাড়াও বিদ্যালয়ের, শিক্ষক, অভিভাবক ও কর্মচারীদের জন্যও প্রতিযোগিতার অংশগ্রহণ সুযোগ ছিল।


আরও পড়ুন
Hexus IELTS