রবিবার | ৩রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৯শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
শ্রীমঙ্গলের সেন্ট মার্থাস উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরনী ফুলতলা ইউনিয়নে আইনশৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত মৌলভীবাজারে একতা যুব সংস্থার তাফসিরুল কোরআন মাহফিল ৩০ জানুয়ারি শীতার্ত মানুষের কল্যাণে স্টুডেন্ট ওয়েলফেয়ার সোসাইটির শীতবস্ত্র বিতরণ ‘বলাই-সজীব ভাই-ভাই, এক দড়িতে ফাঁসি চাই’ কুশিয়ারা পাড়ের ঐতিহ্যবাহী পৌষ সংক্রান্তির মাছের মেলা অদক্ষ চালক কেড়ে নিল প্রাণ; নতুন বই নিয়ে বাড়ি ফিরা হল না খাদিজার কুলাউড়ায় ঐতিহ্যবাহী ‘মাছের মেলা’ নবনির্বাচিত কৃষিমন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা দিয়েছে জেলা আওয়ামিলীগ শ্রীমঙ্গলে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে ত্রিপুরা পল্লীতে শীতবস্ত্র বিতরন

কুলাউড়ায় ঐতিহ্যবাহী ‘মাছের মেলা’

শুভ গোয়ালা, কুলাউড়া
প্রকাশিত: রবিবার, ১৪ জানুয়ারি, ২০২৪, ৭:১১ পূর্বাহ্ণ

কুলাউড়া উপজেলায় বসেছে ঐতিহ্যবাহী ‘মাছের মেলা’। প্রতি বছর পৌষ সংক্রান্তিকে কেন্দ্র করে সংক্রান্তির আগের দিন এই এই মেলার আয়োজন করা হয়।

রবিবার ১৪ জানুয়ারি উপজেলার ব্রাক্ষনবাজারে মাছের মেলা ঘুরে দেখা যায়, মাছের আড়ৎদাররা মাছ নিয়ে এসেছেন। মজুত করে রাখা হয়েছে ছোট-বড় নানা জাতের মাছ। সারিসারি সাজানো আছে বোয়াল, আইড়,বাঘা, চিতল, কাতলা,পাপদা, রুইসহ বড় আকারের বিভিন্ন ধরনের মাছ।

মাছ ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, এই মাছের মেলাকে কেন্দ্র করে মাছ ব্যবসায়ীরা অনেক আগে থেকেই কে কত বড় আকৃতির মাছ মেলায় উঠাতে পারেন এ নিয়ে চিন্তাভাবনা করে রাখেন । স্থানীয় হাওর এবং মাছের খামার ছাড়াও নওগাঁর মান্দা, পাবনা, জয়পুরহাট, সিরাজগঞ্জ, চাঁপাই নবাবগঞ্জও ঢাকা থেকে মাছ আনা হয়।

এছাড়া, মৌলভীবাজারের হাকালুকি, কাওয়াদিঘি, হাইল হাওর ও মনু, ধলই, কুশিয়ারা নদীসহ বৃহত্তর সিলেটের বিভিন্ন হাওরের মাছের উপর নির্ভর করে প্রতি বছরই বসে এ মেলা। মৎসজীবীরা এই মেলায় মাছ বিক্রির জন্য পাঁচ-ছয় মাস আগে থেকেই বড় বড় মাছ সংগ্রহ করে থাকেন। এই মাছগুলো বিশেষ ব্যবস্থায় পানিতেই বাঁচিয়ে রাখা হয়।

ব্রাক্ষনবাজার মাছের মেলায় মাছ কিনতে যাওয়া জনি বলেন, ‘আমি প্রতিবছর মাছ কিনতে আসি। মেলা উপলক্ষে ৫ হাজার টাকার মধ্যে একটি মাছ কিনতে এসেছি।

সৌরভ নামের একজন ক্রেতা বলেন, ‘বাজারে দেখলাম ২০-২৫ হাজার টাকার মাছ উঠেছে। সন্ধ্যা ৬টার দিকে দেখলাম একটা মাছ ১২ হাজার টাকা দিয়ে বিক্রি হয়েছে।

মাছ বিক্রেতা সাজিদ জানান, অন্যান্য বছরের তুলনায় এই বছর মাছের দাম কম আছে। প্রতিদিনের বাজার থেকে এই মেলায় তেমন পার্থক্য নেই।

বাজার ঘুরে দেখা যায়, সন্ধার পর থেকে মানুষের ঢল নেমেছে মাছের মেলায়। মাছ ব্যবসায়ীরা জানান, এখন মানুষ শুধু মেলা দেখতে বেশি ভিড় জমাচ্ছেন। রাত বাড়ার সাথে সাথে ক্রেতাদের আগমন বাড়বে বলে ধারনা করছেন।


আরও পড়ুন
Hexus IELTS